০৪:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এলো চাঁদের মাটি পৃথিবীতে

  • দৈনিক টার্গেট
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩২:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪
  • ১১৪ বার পঠিত

নজির গড়লো চীনের নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অদেখা অঞ্চল থেকে মাটি ও পাথর নিয়ে পৃথিবীতে ফিরে এসেছে মহাকাশযানটি। যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া চাঁদের কাছাকাছি অঞ্চল থেকে নমুনা সংগ্রহ করলেও, চীনই প্রথম এই মাইলফলক স্পর্শ করলো।

ইতিহাস গড়ে পৃথিবীতে ফিরে এলো নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অদেখা অঞ্চল থেকে মাটি ও পাথর নিয়ে ফিরে এসেছে মহাকাশযানটি। পৃথিবীর একমাত্র দেশ হিসেবে অনন্য কীর্তির সাক্ষী হলো চীন।

বিবিসি বলছে, মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে মঙ্গোলিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল সিজিওয়াং ব্যানারে অবতরণ করে নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের যে অংশ থেকে নমুনা আনা হয়েছে তা নিয়ে এখনও অনেক কিছু অজানা।

কারণ অঞ্চলটি পৃথিবী থেকে কখনও দেখা যায় না। এই নমুনা বিশ্লেষণের জন্য মঙ্গোলিয়া থেকে চীনে নেয়া হচ্ছে।

গত ৩ মে দক্ষিণ চীন থেকে রওনা দেয় মনুষ্যবিহীন নভোযানটি। এরপর ২ জুন এটি সফলভাবে চাঁদে অবতরণ করে। প্রায় দুই দিন ধরে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর সবচেয়ে পুরানো এবং বড় গর্ত থেকে মাটি ও পাথর সংগ্রহ করে যানটি।

এসব নমুনা সংগ্রহ করতে ব্যবহার করা হয় রোবট ও ড্রিল মেশিন।

এ ঘটনাকে চীনের জন্য বড় অর্জন হিসেবে দেখছেন জ্যোতির্পদার্থবিদ্যা ও মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যদিয়ে দুই পরাশক্তি চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে মহাকাশ প্রতিযোগিতা আরও তীব্র হবে বলে শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন অনেকে।

কারণ এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া চাঁদের কাছাকাছি অঞ্চল থেকে নমুনা সংগ্রহ করলেও, এই অঞ্চলে পৌঁছাতে পারেনি। চীনই প্রথম এই মাইলফলক স্পর্শ করলো।

এলো চাঁদের মাটি পৃথিবীতে

প্রকাশের সময় : ০৯:৩২:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪

নজির গড়লো চীনের নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অদেখা অঞ্চল থেকে মাটি ও পাথর নিয়ে পৃথিবীতে ফিরে এসেছে মহাকাশযানটি। যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া চাঁদের কাছাকাছি অঞ্চল থেকে নমুনা সংগ্রহ করলেও, চীনই প্রথম এই মাইলফলক স্পর্শ করলো।

ইতিহাস গড়ে পৃথিবীতে ফিরে এলো নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অদেখা অঞ্চল থেকে মাটি ও পাথর নিয়ে ফিরে এসেছে মহাকাশযানটি। পৃথিবীর একমাত্র দেশ হিসেবে অনন্য কীর্তির সাক্ষী হলো চীন।

বিবিসি বলছে, মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে মঙ্গোলিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল সিজিওয়াং ব্যানারে অবতরণ করে নভোযান চ্যাংই–৬। চাঁদের যে অংশ থেকে নমুনা আনা হয়েছে তা নিয়ে এখনও অনেক কিছু অজানা।

কারণ অঞ্চলটি পৃথিবী থেকে কখনও দেখা যায় না। এই নমুনা বিশ্লেষণের জন্য মঙ্গোলিয়া থেকে চীনে নেয়া হচ্ছে।

গত ৩ মে দক্ষিণ চীন থেকে রওনা দেয় মনুষ্যবিহীন নভোযানটি। এরপর ২ জুন এটি সফলভাবে চাঁদে অবতরণ করে। প্রায় দুই দিন ধরে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর সবচেয়ে পুরানো এবং বড় গর্ত থেকে মাটি ও পাথর সংগ্রহ করে যানটি।

এসব নমুনা সংগ্রহ করতে ব্যবহার করা হয় রোবট ও ড্রিল মেশিন।

এ ঘটনাকে চীনের জন্য বড় অর্জন হিসেবে দেখছেন জ্যোতির্পদার্থবিদ্যা ও মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যদিয়ে দুই পরাশক্তি চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে মহাকাশ প্রতিযোগিতা আরও তীব্র হবে বলে শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন অনেকে।

কারণ এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া চাঁদের কাছাকাছি অঞ্চল থেকে নমুনা সংগ্রহ করলেও, এই অঞ্চলে পৌঁছাতে পারেনি। চীনই প্রথম এই মাইলফলক স্পর্শ করলো।